শনিবার ১৬ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৩১শে আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম:
দুর্গাপূজা উপলক্ষ্যে রুয়েট বঙ্গবন্ধু কর্মকর্তা পরিষদের উপহার সামগ্রী বিতরণ রাবির ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষায় অনুসরণীয় নির্দেশনাবলী রাবির সাবেক ভিসির বিরুদ্ধে দুদককে তদন্তের নির্দেশনা ছয় সপ্তাহ স্থগিত ২১০টি অনিয়মিত পত্রিকা বাতিলের তালিকা করা হয়েছে: তথ্যমন্ত্রী রাসিকের সিমলা মার্কেট, বৈশাখী বাজার ও স্বপ্নচূড়া প্লাজার শেয়ার হস্তান্তর রামেক হাসপাতালের রক্ত পরীক্ষার টাকা জমার কাউন্টারে রোগি ও স্বজনদের ভোগান্তি চরমে রাজশাহীতে মাদক অপরাধ দমনে করণীয় নির্ধারণ সভা গরুর দাম বহুত বেশি ভাইয়া খবর যায় হোক এখানে ছবি আপলোড হবে বুঝছেন মিয়া ভাই মুশফিকের পর সাকিবকে ছাড়িয়ে যাওয়ার অপেক্ষায় পরীমনি

অজ্ঞাত রোগ শনাক্তে সারা বছর তৎপর যারা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

অজ্ঞাত রোগের কথা শুনলেই মানুষের মনে একধরনের শঙ্কা কাজ করে। শঙ্কা দূর করতে এই ধরনের রোগ শনাক্ত করার কাজ করে রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) বিশেষায়িত একটি দল। নাম ‘র‌্যাপিড রেসপন্স টিম’। দেশের কোথাও অজ্ঞাত রোগে মানুষ বা পশুপাখি আক্রান্ত হওয়ার খবর শুনলেই চার ঘণ্টার প্রস্তুতিতে অনুসন্ধানে বেরিয়ে পড়তে পারে দলটি।

স্বাধীনতার পর থেকে স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা খাতে উন্নতির লক্ষ্যে সরকার যে কটি প্রতিষ্ঠান তৈরি করেছিল, তার মধ্যে অন্যতম আইইডিসিআর। এর প্রধান কাজ: রোগের ওপর নজরদারি এবং নতুন রোগ শনাক্ত বা রোগের প্রাদুর্ভাবের কারণ অনুসন্ধান করা। শেষের কাজ দুটি বছরব্যাপী করে র‌্যাপিড রেসপন্স টিম।

আইইডিসিআরের পরিচালক অধ্যাপক তাহমিনা শিরীন প্রথম আলোকে বলেন, ‘কাজটি করা আমাদের জন্য বাধ্যতামূলক। আমরা ঘটনা জানি বা শুনি, ঘটনা যাচাই করি, ঘটনাস্থলে র‌্যাপিড রেসপন্স টিম পাঠাই। এই কাজটি সারা বছর ধরে চলে। এই মহামারির সময়েও অন্য রোগের অনুসন্ধান বন্ধ থাকেনি।’

এ বছরের শুরুতে ঝিনাইদহ থেকে খবর এসেছিল, অজ্ঞাত কারণে গরু মারা যাচ্ছে। ছুটে গিয়েছিল র‌্যাপিড রেসপন্স টিম। জানা যায়, একটি বেসরকারি ব্যাটারি কারখানা থেকে সিসা ছড়িয়ে পড়ছে। গরু মৃত্যুর কারণ সিসা। আইইডিসিআর আরও জানতে পারে, সিসার বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত এলাকার শিশুরাও। দেড় মাস আগে বরিশাল বিভাগের কয়েকটি স্থানে হঠাৎ ডায়রিয়াজনিত রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছিল। কারণ অনুসন্ধানে গিয়েছিল দলটি।

আইইডিসিআরের দেওয়া তথ্যে দেখা যায়, বছরে গড়ে ২২টি ঘটনা তারা অনুসন্ধান করে। প্রতিষ্ঠানটির প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. এ এস এম আলমগীর প্রথম আলোকে বলেন, ‘নতুন বা অজ্ঞাত রোগের তথ্য আমরা পাই গণমাধ্যম থেকে। এ ছাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বা জেলা সিভিল সার্জনদের কাছ থেকেও আমরা নতুন ঘটনা সম্পর্কে আনতে পারি। সূত্র যা-ই হোক, ছুটে যাই দ্রুত।’

অজ্ঞাত রোগ শনাক্তে সারা বছর তৎপর যারা

তিন স্তরের নেটওয়ার্ক

আইইডিসিআরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সারা দেশে র‌্যাপিড রেসপন্স টিমের তিন স্তরের একটি নেটওয়ার্ক আছে। সবচেয়ে নিচের স্তরে আছে উপজেলা র‌্যাপিড রেসপন্স টিম। ৯ সদস্যের এই দলের প্রধান হিসেবে কাজ করেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা।

এর ওপরে আছে জেলা র‌্যাপিড রেসপন্স টিম। ১৩ সদস্যের এই দলের প্রধান জেলা সিভিল সার্জন। ঢাকায় আইইডিসিআর কার্যালয়ে আছে ন্যাশনাল র‌্যাপিড রেসপন্স টিম। কেন্দ্রীয় দলটিতে কমপক্ষে সাতজন সদস্য থাকে। এর নেতৃত্বে থাকেন প্রতিষ্ঠানের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা।

বিশেষায়িত অনুসন্ধান

কেন্দ্রীয় এই দলটি প্রয়োজনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ঢাকা কার্যালয়ের কর্মকর্তাদেরও সঙ্গে নেন। এ ছাড়া আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র বাংলাদেশের (আইসিডিডিআরবি) বিজ্ঞানী ও গবেষক নিয়মিতভাবে আইইডিসিআরের দলে যুক্ত হয়ে সারা দেশে কাজ করেন। আইসিডিডিআরবির সংক্রামক ব্যাধি বিভাগের সহকারী বিজ্ঞানী ও প্রাদুর্ভাব অনুসন্ধান দলের প্রধান ডা. সৈয়দ মইনুদ্দিন সাত্তার প্রথম আলোকে বলেন, ‘কাজটির সবটাই কারিগরি বিষয়। দল গঠন, প্রস্তুতি, যাত্রা শুরু, মাঠের কাজ—সবকিছু হয় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা অনুসারে। এই কাজে যুক্ত প্রত্যেকেরই প্রশিক্ষণ থাকতে হয়।’

এ এস এম আলমগীর ও সৈয়দ মইনুদ্দিন সাত্তার অনেক অনুসন্ধানে অংশ নিয়েছেন। তাঁরা বলেছেন, একটি অজানা পরিস্থিতির মুখোমুখি হওয়ার জন্য ব্যক্তিগত সুরক্ষার প্রয়োজন পড়ে। দলের সদস্যদের ব্যক্তিগত সুরক্ষাসামগ্রী (পিপিই) ব্যবহার করতে হয়। এ ছাড়া যে স্থানে বা জনগোষ্ঠীতে অনুসন্ধান চালাতে হয়, সেখানকার সংস্কৃতি, রীতিনীতি ও ব্যবস্থার বিষয়ে সতর্ক থাকতে হয়।

আইইডিসিআরের দেওয়া তথ্য অনুসারে ২০০৭ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত ৩১০টি ঘটনার অনুসন্ধান করেছে তারা। চলতি বছরে করেছে ৯টি অনুসন্ধান।

এসব অনুসন্ধান থেকে দেশের মানুষ নিপাহ, বার্ড ফ্লু, সোয়াইন ফ্লুর মতো রোগ সম্পর্কে প্রথম জানতে পারে। কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শিবিরে ডিফথেরিয়ার প্রাদুর্ভাব শনাক্ত করেছিল আইইডিসিআরের র‌্যাপিড রেসপন্স টিম।

নতুন রোগ শনাক্ত করে বা রোগের প্রাদুর্ভাবের কারণ নির্ণয় করে দায়িত্ব শেষ করে না আইইডিসিআর। এরপর তারা মানুষের জন্য স্বাস্থ্য বার্তা তৈরি করে, মানুষকে সচেতন করার জন্য নিয়মিত বুলেটিন প্রচার করে, সংবাদ ব্রিফিং করে, বিভিন্ন রোগনিয়ন্ত্রণ কিটের যথার্থতা যাচাই করে, রোগটির ঝুঁকির বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে পরামর্শ করে এবং সরকারকে করণীয় বিষয়ে পরামর্শ দেয়।

রোগতত্ত্ববিদ অধ্যাপক মাহমুদুর রহমান দীর্ঘদিন এই অনুসন্ধান কাজের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। এখন স্বাধীন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ হিসেবে কাজ করছেন। মাহমুদুর রহমান বলেন, ‘৫০ বছর আগে রোগের বিষয়ে অনুসন্ধান আজকের পদ্ধতিতে হতো না। প্রাথমিক স্বাস্থ্য কর্মসূচির আওতায় কাজগুলো হতো। এখন নতুন রোগ শনাক্ত করা বা প্রাদুর্ভাবের কারণ জানার পাশাপাশি অনুসন্ধানের একটি উদ্দেশ্য থাকে রোগটি যেন দ্রুত ছড়িয়ে না পড়ে। সময় এখানে গুরুত্বপূর্ণ। র‌্যাপিড রেসপন্স টিম যত দ্রুত কাজ করে, রোগনিয়ন্ত্রণ তত সহজ হয়।’

এই বিভাগের আরও খবর

দুর্গাপূজা উপলক্ষ্যে রুয়েট বঙ্গবন্ধু কর্মকর্তা পরিষদের উপহার সামগ্রী বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: আজ মঙ্গলবার ফযলভঠ ৫টায় রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় (রুয়েট) শাখা বঙ্গবন্ধু কর্মকর্তা পরিষদের উদ্যোগে শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষ্যে সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বী শতাধিক দরিদ্র

রাবির ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষায় অনুসরণীয় নির্দেশনাবলী

১. ট্রাফিক ব্যবস্থা সংক্রান্ত ক) সকল প্রকার যানবাহন বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজলা ও বিনোদপুর গেট দিয়ে প্রবেশ করবে এবং মেইন গেট দিয়ে বেরিয়ে যাবে। শারীরিক প্রতিবন্ধীরা যানবাহন

রাবির সাবেক ভিসির বিরুদ্ধে দুদককে তদন্তের নির্দেশনা ছয় সপ্তাহ স্থগিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষক নিয়োগে অনিয়ম ও ক্ষমতার অপব্যবহার হয়েছে কিনা? তদন্ত করে ৬০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সুপ্রীমকোর্টের হাইকোর্ট বিভাগ, দুর্নীতি

২১০টি অনিয়মিত পত্রিকা বাতিলের তালিকা করা হয়েছে: তথ্যমন্ত্রী

রাজশাহী ডেস্ক: অনিয়মিত পত্রিকা বাতিল করা হবে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘২১০টি পত্রিকা, যেগুলো আসলে ছাপা হয় না। মাঝে মাঝে

রাসিকের সিমলা মার্কেট, বৈশাখী বাজার ও স্বপ্নচূড়া প্লাজার শেয়ার হস্তান্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপের (পিপিপি) আওতায় নির্মিত সিমলা মার্কেটের সম্পূর্ণ এবং বৈশাখী বাজার ও স্বপ্নচূড়া প্লাজার শেয়ার আংশিক হস্তান্তর করা

রামেক হাসপাতালের রক্ত পরীক্ষার টাকা জমার কাউন্টারে রোগি ও স্বজনদের ভোগান্তি চরমে

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের রক্ত পরীক্ষার টাকা জমা দেয়ার কাউন্টারে প্রতিদিন চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে রোগি ও স্বজনদের। রক্ত পরীক্ষার জন্য একটিমাত্র