শিরোনাম:
এবার রাবির নতুন উপ-উপাচার্যকে ঘিরে বিতর্ক রাবির নতুন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান উল ইসলাম টিপু রাবি প্রশাসনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী কাউকে দায়িত্ব না দেওয়ার ও দ্রুত ভিসি নিয়োগের দাবিতে মানববন্ধন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও দর্শনের চর্চা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিবে ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী বিতর্কিত ভূমিকার কাউকে ভিসি, প্রো-ভিসি নিয়োগ কেউই মেনে নেবে না’ ইতিহাসবিদ এ বি এম হোসেন : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গৌরবস্তম্ভ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে উপাচার্যের নির্বাহী আদেশ অমান্যসহ তথ্য গোপনের অভিযোগ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে এখন মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী অফিসারদের উপস্থিতি চোখে পড়ে ‘হ্যাটস অফ টু ইউ স্যার’ ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, বঙ্গবন্ধুর তনয়া, দেশরত্ন শেখ হাসিনা আপা, আপনি আস্থা ও ভরসার শেষ ঠিকানা’
১১ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৬শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

গরিব দেশগুলো বিপর্যস্ত, স্বাভাবিক হচ্ছে ধনীরা

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে উন্নত বিশ্বের বিভিন্ন দেশ এরই মধ্যে টিকাদান কর্মসূচি অনেকটাই এগিয়ে নিয়েছে। উন্নত দেশগুলোর কোটি কোটি মানুষ টিকা পেয়ে গেছেন। সেখানে সংক্রমণ আগের চেয়ে কমে আসছে। মানুষ স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে শুরু করেছেন। অনেকেই গ্রীষ্মকালীন ছুটিতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। ধীরে ধীরে গতি ফিরে পাচ্ছে অর্থনীতি। অন্যদিকে স্বল্পোন্নত ও উন্নয়নশীল দেশগুলোর দিকে দেখুন, অনেক দেশে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। সংক্রমণ মাত্রা ছাড়িয়েছে। প্রয়োজনীয় টিকা পাচ্ছে না এসব দেশ। পেলেও কাজে লাগাতে পারছে না। ফলে স্বল্পোন্নত ও উন্নয়নশীল বিশ্বে সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা জনগোষ্ঠীও টিকা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

করোনাকালে এমন পরিস্থিতি উন্নত ও উন্নয়নপ্রত্যাশী বিশ্বের মধ্যকার বৈষম্য চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে, যা আগামী দিনগুলোয় আরও প্রকট হতে পারে। বৈষম্যের চিত্র এতটাই মারাত্মক যে করোনার ধাক্কা সামলে ইউরোপ-যুক্তরাষ্ট্রে যখন ক্লাব-রেস্টুরেন্ট চালু হচ্ছে, তখন ভারতে অক্সিজেনের অভাবে কোভিড-১৯ রোগীর মৃত্যুর মিছিল দেখা যাচ্ছে। শোচনীয় পরিস্থিতিতে পড়েছে ব্রাজিলও।

করোনাবিষয়ক বিধিনিষেধ শিথিল হওয়ায় খুলেছে রেস্টুরেন্ট। ২১ এপ্রিল, ডেনমার্কের কোপেনহেগেনে।
করোনাবিষয়ক বিধিনিষেধ শিথিল হওয়ায় খুলেছে রেস্টুরেন্ট। ২১ এপ্রিল, ডেনমার্কের কোপেনহেগেনে। 

করোনা মোকাবিলায় বিশ্বজুড়ে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ হিসেবে দেখা হচ্ছে টিকা দেওয়া। তবে টিকার বেশির ভাগ ব্যবহার হয়েছে উন্নত দেশগুলোয়। টিকা প্রাপ্তিতে এ বৈষম্য দূর করতে গত বছর প্রায় ১৯২টি দেশ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আওতায় কোভ্যাক্স নামে সহযোগিতামূলক বৈশ্বিক উদ্যোগ শুরু করেছিল। এমনকি ভারতের কারখানায় গরিব দেশগুলোর জন্য করোনার টিকা উৎপাদনে ৩০ কোটি ডলার দিয়েছে বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন। ইউরোপীয় ইউনিয়ন বলেছে, টিকা পাওয়ার নিশ্চয়তা বৈশ্বিক মানবাধিকার।

তবে টিকার প্রাপ্তি ও বৈষম্য দূর করার পথে এখনো অনেকটা পিছিয়ে রয়েছে এসব উদ্যোগ, যার কারণে উন্নয়নপ্রত্যাশী দেশগুলোয় সংক্রমণ লাফিয়ে বাড়ছে। বিশেষত, ভারত ও দক্ষিণ আমেরিকায় করোনা পরিস্থিতি মারাত্মক রূপ নিয়েছে। স্বাভাবিক সময়ে টিকার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ উৎস ভারত। এখন দেশটি নিজেই মানবিক সংকটে পড়েছে। বেড়েছে টিকার অভ্যন্তরীণ চাহিদা। এ কারণে করোনার টিকা রপ্তানি সাময়িক বন্ধ রেখেছে ভারত। এতে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে বৈশ্বিক উদ্যোগ কোভ্যাক্স। কেননা, এ উদ্যোগের আওতায় বেশির ভাগ টিকা ভারত থেকে সরবরাহ করার কথা রয়েছে।

ভারত থেকে টিকা সরবরাহের ওপর নির্ভর করে থাকলে কোভ্যাক্সকে মূল্য দিতে হবে।

—জেইন রিজভি, বিশেষজ্ঞ, পাবলিক সিটিজেন।

ব্রাজিলে এখন প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষ করোনায় মারা যাচ্ছেন। অথচ দেশটিতে পর্যাপ্ত টিকা নেই। চলতি বছরের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত ব্রাজিল অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার যে পরিমাণ সরবরাহের প্রতিশ্রুতি পেয়েছিল, পেয়েছে তার ১০ ভাগের ১ ভাগ।

admin

Read Previous

পাইকারিতে ৮ টাকা পর্যন্ত কমেছে, খুচরায় ২ টাকা

Read Next

১৪ লাখ মানুষের দ্বিতীয় ডোজ টিকার কী হবে?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *