শিরোনাম:
রামেক হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গে আরও ১৮ জনের মৃত্যু এবার রাবির নতুন উপ-উপাচার্যকে ঘিরে বিতর্ক রাবির নতুন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান উল ইসলাম টিপু রাবি প্রশাসনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী কাউকে দায়িত্ব না দেওয়ার ও দ্রুত ভিসি নিয়োগের দাবিতে মানববন্ধন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও দর্শনের চর্চা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিবে ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী বিতর্কিত ভূমিকার কাউকে ভিসি, প্রো-ভিসি নিয়োগ কেউই মেনে নেবে না’ ইতিহাসবিদ এ বি এম হোসেন : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গৌরবস্তম্ভ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে উপাচার্যের নির্বাহী আদেশ অমান্যসহ তথ্য গোপনের অভিযোগ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে এখন মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী অফিসারদের উপস্থিতি চোখে পড়ে ‘হ্যাটস অফ টু ইউ স্যার’
১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

দ্বিতীয় ডোজের স্বল্পতা, টিকাকেন্দ্রে অসন্তোষ

টিকার প্রথম ডোজ পাওয়া ১৫ লাখের বেশি মানুষের মধ্যে অনিশ্চয়তা বাড়ছে। তাঁরা দ্বিতীয় ডোজ কবে পাবেন, তা স্পষ্ট করতে পারছে না স্বাস্থ্য বিভাগ। এদের একটি অংশ গতকাল রোববার চট্টগ্রামে টিকাকেন্দ্রে অসন্তোষ প্রকাশ করেছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, গতকাল পর্যন্ত ৫৮ লাখ ১৯ হাজার ৯০০ জনকে প্রথম ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। এঁদের মধ্যে দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ৩৪ লাখ ৯৬ হাজার ১৮৬ জন। দ্বিতীয় ডোজের জন্য অপেক্ষায় আছেন ২৩ লাখ ২৩ হাজার ৭১৪ জন। কিন্তু স্বাস্থ্য বিভাগের হাতে আছে ৮ লাখের কিছু বেশি টিকা।

প্রথম ডোজ পাওয়া কত মানুষ দ্বিতীয় ডোজ আপাতত পাবেন না, তা নিয়ে বিভিন্ন ধরনের বক্তব্য পাওয়া যাচ্ছে। ৫ মে সংবাদ বুলেটিনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, ১৪ লাখ ৪০ হাজার মানুষের দ্বিতীয় ডোজ টিকা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

অসন্তোষ চট্টগ্রামে

উপজেলা ও জেলা শহরের সরকারি হাসপাতালসহ সারা দেশে প্রায় এক হাজার কেন্দ্রে প্রতিদিন টিকা দেওয়া হচ্ছে। এর মধ্যে অনেক কেন্দ্রে টিকার মজুত কমে আসছে। খুলনা জেলার একজন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা প্রথম আলোকে বলেছেন, প্রথম ডোজ দেওয়া সব মানুষকে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া সম্ভব হবে না।

দেশের অন্যতম বড় টিকাকেন্দ্র বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ)। গতকাল সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. শারফুদ্দিন আহমেদ প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা ২০ মে পর্যন্ত টিকা দেওয়া অব্যাহত রাখতে পারব। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে নতুন টিকা সরবরাহ না করলে প্রথম ডোজ পাওয়া প্রায় ৮ হাজার মানুষকে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া সম্ভব হবে না।’

এই পরিস্থিতি প্রায় সারা দেশে। এ নিয়ে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। প্রথম আলোর চট্টগ্রামের প্রতিনিধি জানাচ্ছেন, গতকাল চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সকাল থেকে টিকা নিতে আসা মানুষের ভিড় ছিল। টিকার স্বল্পতার কারণে সবাইকে টিকা দেওয়া সম্ভব হবে না বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়ে দেয়। তারপরও মানুষ ভিড় করেছিলেন। হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম হুমায়ুন কবীর প্রথম আলোকে বলেন, ‘টিকার সংকট রয়েছে। আজ (সোমবার) দেওয়ার জন্য আমরা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে ১০০ ভায়াল এনেছি। তাতে এক হাজার মানুষকে দেওয়া সম্ভব। কিন্তু যাঁদের মোবাইল ফোনে কোনো এসএমএস যায়নি, তাঁরাও টিকা নিতে ভিড় করছেন। এখন আমি তো তাঁদের দিতে পারব না।’

চট্টগ্রাম শহরের একাধিক কেন্দ্রে

admin

Read Previous

দুটি কোম্পানির সক্ষমতার বিষয়ে মত দিল কমিটি

Read Next

২৯টি বিষয় নিশ্চিত হতে বলল আইন মন্ত্রণালয়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *