শিরোনাম:
রামেক হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গে আরও ১৮ জনের মৃত্যু এবার রাবির নতুন উপ-উপাচার্যকে ঘিরে বিতর্ক রাবির নতুন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান উল ইসলাম টিপু রাবি প্রশাসনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী কাউকে দায়িত্ব না দেওয়ার ও দ্রুত ভিসি নিয়োগের দাবিতে মানববন্ধন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও দর্শনের চর্চা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিবে ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী বিতর্কিত ভূমিকার কাউকে ভিসি, প্রো-ভিসি নিয়োগ কেউই মেনে নেবে না’ ইতিহাসবিদ এ বি এম হোসেন : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গৌরবস্তম্ভ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে উপাচার্যের নির্বাহী আদেশ অমান্যসহ তথ্য গোপনের অভিযোগ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে এখন মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী অফিসারদের উপস্থিতি চোখে পড়ে ‘হ্যাটস অফ টু ইউ স্যার’
১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

পাইকারিতে ৮ টাকা পর্যন্ত কমেছে, খুচরায় ২ টাকা

সারা দেশে অর্ধেকের বেশি বোরো ধান কাটা হয়ে গেছে। কৃষকের গোলায় এখন প্রায় এক কোটি টন চালের সমপরিমাণ ধান রয়েছে। এতে চালের দাম পাইকারিতে ও মিলগেটে কেজিতে দুই থেকে আট টাকা পর্যন্ত কমেছে ঠিকই, কিন্তু এর সুফল ভোক্তারা পাচ্ছেন না। খুচরায় আগের চড়া দামেই চাল কিনতে হচ্ছে তাঁদের।

সরকারি সংস্থা কৃষি বিপণন অধিদপ্তর এবং ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের হিসাবে খুচরায় সব ধরনের চালের দাম গত এক সপ্তাহে কমেনি। কৃষি মন্ত্রণালয়ের হিসাবে, এবার বোরোতে ২ কোটি ৫ লাখ টন চাল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করা হয়েছিল। বোরো পেকে ওঠার আগে এপ্রিলের শুরুতে কালবৈশাখী ঝড় ও দাবদাহে এক লাখ টন চালের সমপরিমাণ ধান নষ্ট হয়েছে। তবে গত বছরের চেয়ে এবার বেশি জমিতে বোরো ধান চাষ হয়েছে। ফলে মোট উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ছুঁয়ে যাবে বলে মন্ত্রণালয় থেকে আশা প্রকাশ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক প্রথম আলোকে বলেন, এখন যে ধানগুলো উঠছে, সেগুলো কিছুটা ভেজা। এগুলো শুকালে দাম আরও বাড়বে। সরকার এবার ধান কাটা শুরুর সঙ্গে সঙ্গে বোরো সংগ্রহ শুরু করেছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ধান বেশি করে কেনায় এবার কৃষকেরা লাভবান হবেন। আর বিদেশ থেকেও চাল আমদানির দরকার হবে না।

কৃষি অর্থনীতিবিদ ও গবেষকেরা বলছেন, অন্য বছর বোরোর ফলন ভালো হলে মে মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে ধান-চালের দাম কমে আসে। কোনো কারণে হাওরে আগাম বন্যা হলে বা অতিবৃষ্টির কারণে ধান ক্ষতিগ্রস্ত হলে দাম বেড়ে যায়। এবার এর কোনোটিই হয়নি। নতুন ধান উঠতে শুরু করায় দেশের বেশির ভাগ এলাকায় ধানের দামও কমতে শুরু করেছে। কিন্তু চালের বাজার বড় ব্যবসায়ীদের নিয়ন্ত্রণে থাকায় দাম কমছে না।

দেশে ধান-চালের ব্যবসা বেশি হয় কুষ্টিয়া, নওগাঁ ও রংপুরে। এসব এলাকা থেকে প্রথম আলোর প্রতিনিধিরা জানিয়েছেন, সেখানকার হাটগুলোতে প্রতিদিনই বিপুল পরিমাণ ধান উঠছে। সরকার প্রতি কেজি মোটা ধান ২৭ টাকায় কেনার ঘোষণা দিয়েছে। কিন্তু রংপুরে প্রতি কেজি ধান ২০ টাকা, নওগাঁয় ১৭ থেকে ১৮ টাকা এবং কুষ্টিয়ায় ১৮ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তবে এগুলো মূলত ভেজা ধান। শুকালে দাম কেজিতে দুই থেকে তিন টাকা পর্যন্ত বাড়বে। তাতেও সরকার নির্ধারিত দামের চেয়ে ধানের দাম কমই থাকছে।

admin

Read Previous

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ কাটার কোনো হিসাব নেই

Read Next

গরিব দেশগুলো বিপর্যস্ত, স্বাভাবিক হচ্ছে ধনীরা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *