শনিবার ১৬ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৩১শে আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম:
দুর্গাপূজা উপলক্ষ্যে রুয়েট বঙ্গবন্ধু কর্মকর্তা পরিষদের উপহার সামগ্রী বিতরণ রাবির ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষায় অনুসরণীয় নির্দেশনাবলী রাবির সাবেক ভিসির বিরুদ্ধে দুদককে তদন্তের নির্দেশনা ছয় সপ্তাহ স্থগিত ২১০টি অনিয়মিত পত্রিকা বাতিলের তালিকা করা হয়েছে: তথ্যমন্ত্রী রাসিকের সিমলা মার্কেট, বৈশাখী বাজার ও স্বপ্নচূড়া প্লাজার শেয়ার হস্তান্তর রামেক হাসপাতালের রক্ত পরীক্ষার টাকা জমার কাউন্টারে রোগি ও স্বজনদের ভোগান্তি চরমে রাজশাহীতে মাদক অপরাধ দমনে করণীয় নির্ধারণ সভা গরুর দাম বহুত বেশি ভাইয়া খবর যায় হোক এখানে ছবি আপলোড হবে বুঝছেন মিয়া ভাই মুশফিকের পর সাকিবকে ছাড়িয়ে যাওয়ার অপেক্ষায় পরীমনি

সিলেটে ঝুঁকি নিয়ে টিলার ঢালে বাস

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

পাশাপাশি দুটি টিলা। একেকটি ৬০ থেকে ৭০ ফুট উঁচু। নিচ থেকে চূড়া পর্যন্ত একের পর এক ঘর। যেন টিলা বেয়ে ওপরে উঠেছে টিনের তৈরি খুপরিঘরের সারি। ঝুঁকিপূর্ণভাবে টিলা কেটে বানানো ঘরগুলো ঘিরে তৈরি হয়েছে শঙ্কা। প্রবল বৃষ্টিতে টিলাধসে যেকোনো সময় ঘটতে পারে দুর্ঘটনা।

টিলার ঢালে ঝুঁকিপূর্ণ বসবাসের এ চিত্র সিলেট নগরের আখালিয়া ব্রাহ্মণশাসন এলাকার রাইফেলস ক্লাব এলাকায়। এ দুটি টিলা ছাড়াও শহর ও শহরতলির আরও চারটি টিলায় ঝুঁকিপূর্ণ বসতি রয়েছে। এ ছয়টি টিলার ঢালুতে ও পাদদেশে দুই থেকে আড়াই হাজার পরিবার বাস করে বলে পরিবেশকর্মী ও স্থানীয় লোকজন জানিয়েছেন।

গতকাল সোমবার ও গত সপ্তাহে দুদিনে সিলেটে মোট আটবার ভূকম্পন অনুভূত হয়। এরপর নগরের মণিপুরিপাড়ায় পুকুরের পাড়ধসের ঘটনা ঘটে। গত সপ্তাহ থেকে প্রায় প্রতিদিনই লাগাতার বৃষ্টি হচ্ছে। এ অবস্থায় টিলাধসের ঝুঁকির বিষয়টি নতুন করে আলোচনায় এসেছে।

সিলেটের আখালিয়ায় টিলার চূড়ায় তৈরি করা হয়েছে টিনের ঘর
সিলেটের আখালিয়ায় টিলার চূড়ায় তৈরি করা হয়েছে টিনের ঘর

আইনগতভাবে টিলা বন্দোবস্ত দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। বড় ধরনের বৃষ্টি হলে কিংবা ভূমিধস হলে দুর্ঘটনার আশঙ্কা আছে

মো. আসলাম উদ্দিন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব), সিলেট

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ব্রাহ্মণশাসন এলাকায় প্রায় চার একর জায়গায় টিলা দুটির অবস্থান। টিলা দুটির অর্ধেকের বেশি ব্যক্তি মালিকানাধীন, বাকি অংশ সরকারের খাস খতিয়ানভুক্ত। এরই মধ্যে কমবেশি ৩৫ শতাংশ জায়গাতেই বসতবাড়ি উঠেছে। কেউ ব্যক্তিমালিকানাধীন অংশে বাড়ি বানিয়েছেন। তবে অবৈধভাবে টিলা কেটে বাড়ি বানানোয় কিছু স্থান বিপজ্জনক ও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে।

সম্প্রতি সরেজমিনে দেখা গেছে, ব্রাহ্মণশাসন এলাকার দুটি টিলায় দুই শতাধিক টিনের খুপরিঘর আছে। নারী, শিশুসহ একেকটি ঘরে চার থেকে আটজন পর্যন্ত থাকেন। পাদদেশে রয়েছে অন্তত এক হাজার পাকা ও আধা পাকা বাড়ি। এ দুটি টিলা ছাড়াও নগরের হাওলাদারপাড়া এলাকার মজুমদার টিলা এবং শহরতলির খাদিম এলাকার দুটি টিলা ও বালুচরের চন্দন টিলায় রয়েছে ঝুঁকিপূর্ণ বসতি।

পরিবেশকর্মীদের ভাষ্য, টিলা কেটে বাড়ি বানানোয় টিলার শ্রেণি পরিবর্তন হয়েছে। এতে টানা বৃষ্টিতে ধসের আশঙ্কা আছে। এ পরিস্থিতিতে টিলায় ঝুঁকি নিয়ে বসবাসকারীদের নিরাপদে সরে যাওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সিলেটের সাধারণ সম্পাদক আবদুল করিম চৌধুরী।

সিলেটের আখালিয়ায় টিলার নিচে তৈরি করা হয়েছে আবাসন। টিলা ধসের ঝুঁকি নিয়ে সেখানে বসবাস করছেন মানুষজন
সিলেটের আখালিয়ায় টিলার নিচে তৈরি করা হয়েছে আবাসন। টিলা ধসের ঝুঁকি নিয়ে সেখানে বসবাস করছেন মানুষজন

তবে টিলায় কী পরিমাণ ঝুঁকিপূর্ণ বসতবাড়ি আছে কিংবা কত বাসিন্দা বসবাস করেন, এমন সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য স্থানীয় প্রশাসনের কাছে নেই। বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা) সিলেটের বিভাগীয় সমন্বয়ক শাহ শাহেদা আখতার জানান, তাঁরা ২০০৯-১০ সালে নগর ও সদর উপজেলার একটি তালিকা করেছিলেন। তখন ১৯৯টি টিলার সন্ধান পেয়েছেন। এক দশকের ব্যবধানে অনেক টিলা সম্পূর্ণ বা আংশিকভাবে কেটে ফেলা হয়েছে।

ছয়টি টিলার ঢালে ও পাদদেশে দুই থেকে আড়াই হাজার পরিবার বাস করে। বৃষ্টিতে টিলাধসের আশঙ্কা করছেন অনেকে

ব্রাহ্মণশাসন এলাকার টিলা দুটিতে সরেজমিনে দেখা গেছে, বসতঘর নির্মাণের পাশাপাশি টিলার চূড়া কেটে হাঁটার রাস্তা করা হয়েছে। টিলার কিছু অংশ এমনভাবে কেটে রাখা হয়েছে, যাতে বৃষ্টিপাত হলে টিলার মাটি ক্ষয়ে ধীরে ধীরে টিলার শ্রেণি পরিবর্তিত হয়ে সমতলে রূপ পায়। বৃষ্টিপাত শুরু হওয়ায় ইতিমধ্যে টিলার কাটা অংশ থেকে মাটি ধসে নিচে পড়তে শুরু করেছে।

ব্রাহ্মণশাসন এলাকার দুজন বাসিন্দা দাবি করেন, ২০১৩ সালে দুই দফায় এ এলাকার দুটি টিলার বেশ কিছু অংশ জেলা প্রশাসন থেকে ইজারা নিয়েছেন তিন শতাধিক ব্যক্তি। এর মধ্যে দুই শতাধিক ব্যক্তি টিলাতেই বসতবাড়ি নির্মাণ করে থাকছেন।

সিলেটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. আসলাম উদ্দিন বলেন, আইনগতভাবে টিলা বন্দোবস্ত দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। বসবাসকারীরা কেন বন্দোবস্ত পাওয়ার দাবি করছেন, সেটি খতিয়ে দেখা হবে। যাঁরা টিলায় বসবাস করছেন, তাঁরা ঝুঁকিপূর্ণ জীবন বেঁচে নিয়েছেন। বড় ধরনের বৃষ্টি হলে কিংবা ভূমিধস হলে দুর্ঘটনার আশঙ্কা আছে। বসবাসকারীদের এখান থেকে সরে যাওয়ার জন্য এবং টিলা না কাটার জন্য নোটিশ দেওয়া হবে।

ব্রাহ্মণশাসন এলাকার টিলায় বসবাসকারী তিনটি পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা হয়। নাম প্রকাশ না করার শর্তে তাঁরা জানিয়েছেন, বসবাসের বিকল্প কোনো স্থান তাঁদের না থাকায় বড় রকমের ঝুঁকি জেনেও টিলায় থাকছেন। বাসিন্দাদের কেউ ১৫ থেকে ২০ বছর ধরে, আবার কেউ কেউ ২০১৩ সালের পর ঘর তৈরি করে বসবাস করছেন।

সম্প্রতি বালুচরের চন্দনটিলায় দেখা গেছে, টিলার বেশির ভাগ অংশ কেটে ফেলায় পাদদেশে থাকা কয়েক শ বসতবাড়ি ঝুঁকিতে আছে। ভারী বৃষ্টি হলেই টিলাধসে দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে। খাদিম এলাকার দুটি টিলায়ও একই দৃশ্য দেখা যায়।

স্থানীয় খাদিমপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আফছর আহমদ জানান, যাঁরা ঝুঁকি নিয়ে বসবাস করছেন, তাঁদের নিরাপদে সরে যাওয়ার জন্য প্রতি বর্ষা মৌসুমের আগে অনুরোধ জানানো হয়। যেহেতু এরই মধ্যে বৃষ্টিপাত শুরু হয়ে গেছে, তাই নিরাপদে থাকার আহ্বান জানিয়ে কিছুদিনের মধ্যে সচেতনতামূলক মাইকিং করা হবে।

পরিবেশ অধিদপ্তর সিলেট বিভাগের পরিচালক মোহাম্মদ এমরান হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, সিলেটের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের মূল উৎসই হচ্ছে টিলা। তাই টিলা রক্ষায় পরিবেশ অধিদপ্তর কাজ করছে। টিলা ধ্বংসকারীদের বিরুদ্ধে বিগত সময়ে অভিযান হয়েছে, ভবিষ্যতেও হবে। গত এক বছরে সিলেটে টিলা কাটার বিরুদ্ধে ২৬টি অভিযান পরিচালনার পাশাপাশি প্রায় ৫০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সিলেটের আখালিয়ায় টিলায় চূড়ায় তৈরি করা হয়েছে বসতি
সিলেটের আখালিয়ায় টিলায় চূড়ায় তৈরি করা হয়েছে বসতি

সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম প্রথম আলোকে জানান, টিলায় ঝুঁকিপূর্ণ বসতি উচ্ছেদে নগরে সিটি করপোরেশন এবং সদরে উপজেলা পরিষদকে সম্প্রতি দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া জেলা প্রশাসনও খবর পেলেই নিয়মিত অভিযান চালায়। যেহেতু সামনেই বর্ষাকাল, তাই অঘটন এড়াতে বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

দুর্গাপূজা উপলক্ষ্যে রুয়েট বঙ্গবন্ধু কর্মকর্তা পরিষদের উপহার সামগ্রী বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: আজ মঙ্গলবার ফযলভঠ ৫টায় রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় (রুয়েট) শাখা বঙ্গবন্ধু কর্মকর্তা পরিষদের উদ্যোগে শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষ্যে সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বী শতাধিক দরিদ্র

রাবির ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষায় অনুসরণীয় নির্দেশনাবলী

১. ট্রাফিক ব্যবস্থা সংক্রান্ত ক) সকল প্রকার যানবাহন বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজলা ও বিনোদপুর গেট দিয়ে প্রবেশ করবে এবং মেইন গেট দিয়ে বেরিয়ে যাবে। শারীরিক প্রতিবন্ধীরা যানবাহন

রাবির সাবেক ভিসির বিরুদ্ধে দুদককে তদন্তের নির্দেশনা ছয় সপ্তাহ স্থগিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষক নিয়োগে অনিয়ম ও ক্ষমতার অপব্যবহার হয়েছে কিনা? তদন্ত করে ৬০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সুপ্রীমকোর্টের হাইকোর্ট বিভাগ, দুর্নীতি

২১০টি অনিয়মিত পত্রিকা বাতিলের তালিকা করা হয়েছে: তথ্যমন্ত্রী

রাজশাহী ডেস্ক: অনিয়মিত পত্রিকা বাতিল করা হবে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘২১০টি পত্রিকা, যেগুলো আসলে ছাপা হয় না। মাঝে মাঝে

রাসিকের সিমলা মার্কেট, বৈশাখী বাজার ও স্বপ্নচূড়া প্লাজার শেয়ার হস্তান্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপের (পিপিপি) আওতায় নির্মিত সিমলা মার্কেটের সম্পূর্ণ এবং বৈশাখী বাজার ও স্বপ্নচূড়া প্লাজার শেয়ার আংশিক হস্তান্তর করা

রামেক হাসপাতালের রক্ত পরীক্ষার টাকা জমার কাউন্টারে রোগি ও স্বজনদের ভোগান্তি চরমে

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের রক্ত পরীক্ষার টাকা জমা দেয়ার কাউন্টারে প্রতিদিন চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে রোগি ও স্বজনদের। রক্ত পরীক্ষার জন্য একটিমাত্র