শিরোনাম:
রামেক হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গে আরও ১৮ জনের মৃত্যু এবার রাবির নতুন উপ-উপাচার্যকে ঘিরে বিতর্ক রাবির নতুন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান উল ইসলাম টিপু রাবি প্রশাসনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী কাউকে দায়িত্ব না দেওয়ার ও দ্রুত ভিসি নিয়োগের দাবিতে মানববন্ধন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও দর্শনের চর্চা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিবে ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী বিতর্কিত ভূমিকার কাউকে ভিসি, প্রো-ভিসি নিয়োগ কেউই মেনে নেবে না’ ইতিহাসবিদ এ বি এম হোসেন : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গৌরবস্তম্ভ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে উপাচার্যের নির্বাহী আদেশ অমান্যসহ তথ্য গোপনের অভিযোগ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে এখন মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী অফিসারদের উপস্থিতি চোখে পড়ে ‘হ্যাটস অফ টু ইউ স্যার’
১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

হঠাৎ চীনের এই বক্তব্য কেন, বুঝতে চায় বাংলাদেশ

যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন ভারতসহ চারটি দেশের অনানুষ্ঠানিক নিরাপত্তা সংলাপ বা কোয়াডে গেলে ঢাকা-বেইজিং সম্পর্ক খারাপ হওয়ার বিষয়ে চীনের রাষ্ট্রদূতের মন্তব্য বাংলাদেশকে অবাক করেছে। বাংলাদেশ বলেছে, ঢাকা এখন পর্যন্ত কোয়াডে যোগ দেওয়ার আগ্রহ না দেখালেও চীনের রাষ্ট্রদূত আগ বাড়িয়ে মন্তব্য করেছেন। দুই দেশের মধ্যে বোঝাপড়া যখন ভালো, তখন এমন মন্তব্য কোন পরিপ্রেক্ষিতে করা হলো, তা বাংলাদেশ জানতে চায়।

গতকাল মঙ্গলবার সরকারের দায়িত্বশীল একটি সূত্র এই প্রতিবেদককে জানিয়েছে, আজ বুধবার দিনের কোনো এক সময়ে চীনের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে সরকারের দায়িত্বশীল ব্যক্তিরা এ নিয়ে কথা বলতে পারেন।

চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং গত সোমবার ঢাকায় কূটনৈতিক সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় বলেছিলেন, বাংলাদেশ কোয়াডে যোগ দিলে দুই দেশের সম্পর্ক খারাপ হবে। এ নিয়ে দেশে–বিদেশের গণমাধ্যমে নানা পর্যায়ে আলোচনা চলছে।

অবশ্য চীনের রাষ্ট্রদূতের বক্তব্যের বিষয়ে সরকারের পক্ষ থেকে কোনো বার্তা দেওয়া হবে কি না, সে বিষয়টি স্পষ্ট হয়নি। যদিও গতকাল সকালে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় নেপালের কাছে বাংলাদেশের ওষুধসহ জরুরি চিকিৎসাসামগ্রী হস্তান্তর অনুষ্ঠানের পর পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন চীনের রাষ্ট্রদূতের বক্তব্যের বিষয়ে সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘আমরা কী করি না করি, সেটা সব সময় মিডিয়াকে বলি না। উই হ্যাভ ডিফারেন্ট ওয়ে অব ডুয়িং থিঙ্কস। আমরা জানি, আমরা কী করব। সবকিছু বলে দিলে তো মহামুশকিল।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কোয়াড থেকে এখনো বাংলাদেশকে যোগ দিতে কোনো অনুরোধ জানানো হয়নি। তাই চীনের রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যকে আগ বাড়িয়ে বলা হিসেবে দেখছে বাংলাদেশ। তিনি বলেন, ‘এমনিতে চীন কখনো অন্যের বিষয়ে নাক গলায় না। আর এ রকম অ্যাগ্রেসিভ কখনো কাউকে বলতে শুনিনি। এটা খুবই দুঃখজনক। চীনের কাছ থেকে আমরা এ ব্যবহার আশা করিনি।’

সব মিলিয়ে কোয়াড ও আইপিএস ঘিরে যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার অভিন্ন অবস্থান যে বেইজিংকে ভাবিয়ে তুলেছে, তার প্রতিফলন ঘটেছে গত এপ্রিলে বাংলাদেশ সফরে আসা চীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ও ঢাকায় চীনের রাষ্ট্রদূতের বক্তব্যে।

তবে বাংলাদেশের কূটনীতিক ও কূটনৈতিক বিশ্লেষকেরা বলছেন, চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিংয়ের আমলে দেশটির কূটনীতিকেরা আগ্রাসী কূটনীতি পন্থা অনুসরণ করছেন। গত সোমবার চীনা রাষ্ট্রদূতের বক্তব্য সেটারই প্রতিফলন। বিশেষ করে কয়েক বছর ধরে বিভিন্ন দেশে চীনের রাষ্ট্রদূতদের এমন আগ্রাসী ভঙ্গিতে দেখা যাচ্ছে। আর করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরুর পর থেকে পশ্চিমের যে চাপে চীন আছে, তা কমানোর জন্য দেশটি এই পথে হাঁটছে।

ঢাকার কূটনৈতিক সূত্রগুলো এই প্রতিবেদককে জানিয়েছে, করোনা মহামারির সময় চীন বিভিন্ন দেশে নিজের প্রভাব বাড়াচ্ছে। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতেও চীনের উপস্থিতি বাড়ানোর চেষ্টা আছে। যদিও ভারতের সঙ্গে গত বছরের সীমান্ত সংঘাত, ভারতের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের নৈকট্য, ভারত ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় কৌশল (আইপিএস) আর সবশেষ মার্চে কোয়াডের শীর্ষ নেতাদের বৈঠক চীনকে ভাবিয়ে তুলেছে।

admin

Read Previous

সাহস নিয়ে তাঁরা রোগীর পাশে

Read Next

ঈদের পর আরেকটি ঢেউয়ের আশঙ্কা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *