শিরোনাম:
রামেক হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গে আরও ১৮ জনের মৃত্যু এবার রাবির নতুন উপ-উপাচার্যকে ঘিরে বিতর্ক রাবির নতুন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান উল ইসলাম টিপু রাবি প্রশাসনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী কাউকে দায়িত্ব না দেওয়ার ও দ্রুত ভিসি নিয়োগের দাবিতে মানববন্ধন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও দর্শনের চর্চা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিবে ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী বিতর্কিত ভূমিকার কাউকে ভিসি, প্রো-ভিসি নিয়োগ কেউই মেনে নেবে না’ ইতিহাসবিদ এ বি এম হোসেন : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গৌরবস্তম্ভ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে উপাচার্যের নির্বাহী আদেশ অমান্যসহ তথ্য গোপনের অভিযোগ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে এখন মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী অফিসারদের উপস্থিতি চোখে পড়ে ‘হ্যাটস অফ টু ইউ স্যার’
১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

আলমডাঙ্গার চরশ্রীরামপুরের অপহৃত মাদ্রাসা ছাত্রী উদ্ধার


তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে দুটি হারানো মোবাইল ফোন উদ্ধার করে দিলেন আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ। প্রায় তিন চার মার চেষ্টার পর গত বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার মোবাইল ফোন দুটি তাদের মালিকের নিকট হস্তান্তর করেন আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ আলমগীর কবীর।

জানাগেছে, আসমানখালী বাজার এলাকার হারুন অর রশিদের ছেলে আব্দুস সালামের রিডমি ৭ মোবাইল প্রায় ৩ মাস আগে হারিয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুজি করে তার মোবাইলটি না পেয়ে আলমডাঙ্গা থানায় একটি সাধারন ডায়েরী দায়ের করেন(১৩১০)। পরে আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ আলমগীর কবীর জিডিটি এসআই আব্দুল গাফফারের নিকট তদন্তকার জন্য প্রদান করেন। আলমডাঙ্গা থানার এসআই আব্দুল গাফফার তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে গত ৯ জুন বিকালে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার দৌলতদিয়ার দক্ষিণ পাড়ার মৃত নাসির উদ্দিনের ছেলে মোহাম্মদ ইকবালের নিকট থেকে ফোনটি উদ্ধার করেন। গত ১০ জুন মোবাইল ফোনটির মালিক আব্দুস সালামের হাতে মোবাইলটি হস্তান্তর করেন।

আলমডাঙ্গার চরশ্রীরামপুরের অপহৃত মাদ্রাসা ছাত্রী উদ্ধার

আলমডাঙ্গা রুইতনপুরে বজ্রপাতে নিহত কৃষকের পরিবারকে আর্থিক সহযোগিতার প্রদান


অপর দিকে, জীবননগর থানার হাসাদাহ ক্যাম্পের পুলিশ সদস্য তরিকুল ইসলামের স্যামস্যাং এম৪০ মোবাইল ফোনটি ৭ মাস আগে হারিয়ে যায়। মোবাইর ফোনটি খুঁজে না পেয়ে জীবননগর থানায় সাধারন ডায়েরী করেন(৬৯৪)। জীবননগর থানায় কর্মরত থাকাকালিন এএসআই হামিদুল ইসলামের নিকট তদন্ত করার জন্য জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ প্রদান করেন। দীর্ঘদিন মোবাইল ফোনটি বন্ধ ছিল। পরে এএসআই হামিদুল আলমডাঙ্গা থানায় বদলি হয়ে চলে আসলেও তার হারানো ফোন সন্ধান অব্যহত ছিল। ১০ জুন তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে বগুড়া জেলার আদমদীঘি থানার কুন্দগ্রামের আকতার হোসেনের ছেলে সোহেল রানার নিকট থেকে মোবাইল ফোনটি উদ্ধার করে নিয়ে আসেন। ১১ জুন শুক্রবার সকালে পুলিশ সদস্য কনস্টবল তরিকুল ইসলামের নিকট তার মোবাইল ফোনটি আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ আলমগীর কবীর ও এএসআই হামিদুল ইসলাম হস্তান্তর করেন।

admin

Read Previous

আলমডাঙ্গার চরশ্রীরামপুরের অপহৃত মাদ্রাসা ছাত্রী উদ্ধার

Read Next

টাকা আত্মসাৎ করেও বহাল তবিয়তে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *