শিরোনাম:
রামেক হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গে আরও ১৮ জনের মৃত্যু এবার রাবির নতুন উপ-উপাচার্যকে ঘিরে বিতর্ক রাবির নতুন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান উল ইসলাম টিপু রাবি প্রশাসনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী কাউকে দায়িত্ব না দেওয়ার ও দ্রুত ভিসি নিয়োগের দাবিতে মানববন্ধন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও দর্শনের চর্চা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিবে ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী বিতর্কিত ভূমিকার কাউকে ভিসি, প্রো-ভিসি নিয়োগ কেউই মেনে নেবে না’ ইতিহাসবিদ এ বি এম হোসেন : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গৌরবস্তম্ভ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে উপাচার্যের নির্বাহী আদেশ অমান্যসহ তথ্য গোপনের অভিযোগ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে এখন মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী অফিসারদের উপস্থিতি চোখে পড়ে ‘হ্যাটস অফ টু ইউ স্যার’
১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

নগরীতে জীবাশ্ম জ্বালানি ও বৈদেশিক দেনা বাতিলের দাবিতে মানবন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক:
কোভিড-১৯ মহামারি মোকাবেলার জন্য জি-৭ সহ ধনী দেশগুলোর ঋণ ও ঋণের সুদ পরিশোধ করে অবশ্যই স্বাস্থ্য ও সামাজিক নিরাপত্তার মতো নাগরিক পরিষেবা খাতে বিনিয়োগ বাড়াতে হবে। গতকাল রোববার পরিবর্তন ও বাংলাদেশের বৈদেশিক দেনা বিষয়ক কর্মজোট (বিডাব্লিউজিইডি)-এর যৌথ উদ্যোগে পবার বালিয়া এলাকায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে আয়োজিত মানববন্ধন ও সমাবেশে বক্তারা এ কথা বলেন।
যুক্তরাজ্যের কর্নওয়ালে চলমান জি-৭ শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী দেশসমূহের (জাপান, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জার্মানি, ইতালি, ফ্রান্স ও কানাডা) প্রদত্ত ঋণ এবং জীবাশ্ম জ্বালানিতে বিনিয়োগ বাতিলের দাবিতে এ মানববন্ধন ও সমাবেশের আয়োজন করা হয়।
বক্তারা বলেন, বাংলাদশের বৈদেশিক ঋণ প্রদানকারী দেশগুলোর মধ্যে জি-৭ অন্যতম। এসব দেশ বিশ্বব্যাংক, আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকেরও প্রধান বিনিয়োগকারী। এসব দেশই আবার জি-৭ এর সদস্য। আমাদের মতো ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোকে বিপদে ফেলে এসব ধনী দেশ মুনাফা ভোগ করছে।
মোট বৈদেশিক দেনার পরিমাণ ৬ লাখ কোটি টাকা ছাড়িয়ে গেছে যা দেশের বাজেটের সমান। ২০২১-২০২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট অনুসারে এ বছরও বিদেশ থেকে ১ লাখ ১২ হাজার কোটি টাকা ঋণ নিতে হবে। এ বছর ঋণের সুদ হিশেবে ৫৮ হাজার ১০০ কোটি টাকা পরিশোধ করতে হবে যা মোট বাজেটের প্রায় ১০% এবং কৃষি ও স্বাস্থ্য খাতের মোট বরাদ্দের চেয়েও বেশি। এছাড়া বৈদেশিক দেনার আসল ও সুদসহ পরিশেধ করতে হবে আরো ১৩ হাজার কোটি টাকা। বৈদেশিক দেনা বাতিল করলে এ অর্থ সামাজিক নিরাপত্তা কাঠামো গড়ে তোলার কাজে ব্যবহার করা সম্ভব।
উল্লেখ্য, জাপান, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, কানাডা ও ইতালি মাতারবাড়ি ও মেঘনাঘাট বিদ্যুৎকেন্দ্রসহ বাংলাদেশে জীবাশ্ম জ্বালানি-ভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বিনিয়োগ করছে।
বক্তারা জি-৭ভূক্ত দেশের নেতৃবৃন্দের কাছে অবিলম্বে বৈদেশিক দেনা বাতিল করে সামাজিক নিরাপত্তা ও নাগরিক পরিষেবা খাতে ব্যয় বাড়ানো, কয়লাসহ জীবাশ্ম জ্বালানি খাতে বিনিয়াগ বন্ধ করা এবং ঐতিহাসিক দুষণের দায় স্বীকার করে দুর্যোগ-আক্রান্ত জনগোষ্ঠীকে ক্ষতিপূরণ দেয়ার দাবি জানান। সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, এখলাক হোসেন, রমিা বেগম, পরিবর্তন পরিচালক রাশেদ রিপন ও রবিউল ইসলাম।

admin

Read Previous

পুলিশে নিয়োগ হবে ১০ হাজার কনস্টেবল

Read Next

নগরীর হরিজন পল্লীতে রাসিক মেয়রের পক্ষে আম বিতরণ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *