শিরোনাম:
এবার রাবির নতুন উপ-উপাচার্যকে ঘিরে বিতর্ক রাবির নতুন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান উল ইসলাম টিপু রাবি প্রশাসনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী কাউকে দায়িত্ব না দেওয়ার ও দ্রুত ভিসি নিয়োগের দাবিতে মানববন্ধন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও দর্শনের চর্চা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিবে ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী বিতর্কিত ভূমিকার কাউকে ভিসি, প্রো-ভিসি নিয়োগ কেউই মেনে নেবে না’ ইতিহাসবিদ এ বি এম হোসেন : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গৌরবস্তম্ভ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে উপাচার্যের নির্বাহী আদেশ অমান্যসহ তথ্য গোপনের অভিযোগ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে এখন মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী অফিসারদের উপস্থিতি চোখে পড়ে ‘হ্যাটস অফ টু ইউ স্যার’ ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, বঙ্গবন্ধুর তনয়া, দেশরত্ন শেখ হাসিনা আপা, আপনি আস্থা ও ভরসার শেষ ঠিকানা’
১১ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৬শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

‘হ্যাটস অফ টু ইউ স্যার’

টগর মো. সালেহ :

‘ছবিটা সম্ভবত ২০১৫ সালের। আমি আর মাসুদ শিবিরের হামলায় ইনজুরড হওয়ার পর কিছুটা সুস্থ হয়ে ক্যাম্পাসে ফিরে আসার পরের ছবি এটা। আজকের রুটিন দায়িত্বপ্রাপ্ত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি আনন্দ স্যার সে সময় শিক্ষক সমিতির দায়িত্বে ছিলেন। আমার আর মাসুদের মাঝে দাঁড়িয়ে তিনি ছবি তুললেন। এরপরেও অনেকবার স্যারের সাথে দেখা হয়েছে, কথা হয়েছে। উনার এখন যেরূপ দেখছি, আগে মোটেই সেরকম ছিলেন না। কিংবা, আগে উনি ভেক ধরে থাকতেন; এখন যেটা দেখছি এটাই তার আসল রূপ। উনি যেমন, মাসুদ-টগরের সাথে ছবি তুলে রাজনীতি করতে পারেন, তেমনি উনি নিজের প্রয়োজনে মাসুদ-টগরের মতো ছেলেদের পেটে লাথিও মারতে পারেন। হ্যাটস অফ টু ইউ স্যার।

স্যার বরাবরই প্রমাণ করার চেষ্টা করেছেন উনি আমাদের তথা ছাত্রলীগের অনেক বড় শুভাকঙ্খী। কিন্তু উনি এখন দেখাচ্ছেন, ক্ষমতার জন্য উনি সবই করতে পারেন।

শহীদ শামসুজ্জ্বোহা স্যার তাঁর ছাত্রদের জন্য বুকে বুলেট নিয়েছিলেন। আর শহীদ জ্জ্বোহা স্যারের স্মৃতি বিজড়িত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি (রুটিন দায়িত্ব প্রাপ্ত) স্যার আজ ছাত্রদের নামে থানায় জিডি করলেন। যে সামান্য ঘটনার প্রেক্ষিতে উনি জিডির সিদ্ধান্ত নিলেন, ভবিষ্যতে উনি দায়িত্বশীল জায়গায় আসলে আশা করি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় একজন মহান মানুষ পাবে। হয়তো “মামলাবাজ ভিসি” নামক কোনো খেতাব তার জুটে যেতে পারে। তো এই মামলাবাজ ভিসির কিছু তথ্য হাতে এসেছে। খুব শীঘ্রই সেগুলো জাতির সামনে তুলে ধরা হবে।’

সূত্র: রাবির মৃত্যুঞ্জয়ী ছাত্রনেতা টগর মো. সালেহ’র ফেসবুক স্ট্যাটাস

admin

Read Previous

‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, বঙ্গবন্ধুর তনয়া, দেশরত্ন শেখ হাসিনা আপা, আপনি আস্থা ও ভরসার শেষ ঠিকানা’

Read Next

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে এখন মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী অফিসারদের উপস্থিতি চোখে পড়ে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *